Ex বয়ফ্রেন্ড [Part-01]

লেখকঃ সিয়াম হোসেন

সকাল থেকেই মনটা কেমন যেনো উড়ুউড়ু করছে খুশিতে। আজকে আমাকে ছেলে পক্ষ দেখতে আসবে । শুনেছি ছেলেটা নাকি অনেক স্মার্ট আর স্টাইলিশ দেখতেও অনেক সুন্দর । শুনছিলাম আর কল্পনা করছিলাম সেকি আসলেই আমার স্বপ্নের রাজকুমারের মতো দেখতে। ইশ কখন যে তারা আসবে । বাড়ির এদিক সেদিক দিয়ে হাটাহাটি করে সময় পার করছি । 
– কিরে নিলা সকাল থেকেই লক্ষ্য করছি এমন হাটা্াটি করছিস ডায়বেটির হলো নাকি তোর ( ছোট কাকি)
(মনে মনে ভাবছি)এই মাইয়া কয় কি । দেখতে এখনও বাচ্চাদের মতো আর বলে কিনা ডায়বেটিস হয়েছে । ইচ্ছা করছে মাথার উপর একটা গাট্টা মেরে মাথা ফুলাইয়া দেই । আমি স্বপ্নের রাজকুমারকে দেখার অপেক্ষা করছি ।
– কিরে কথা বলছিস না কেনো । (ছোট কাকি)
– না মানে হয়েছে কি কাকিমা আজকে বলে ছেলে পক্ষ দেখতে আসবে তাই ভয় করছে । ( আমি মিথ্যা বললাম)
– আরে দেখতেই তো আসছে এতো ভয় পাবার কি আছে বিয়ে তো আর করছে না । ( ছোট কাকি)
আর কিছু না বলে চলে গেলো । 
দেখতে দেখতে সকাল গড়িয়ে দুপুর হতে চললো । ঘড়ির কাটায় তখন দুইটা বাজে । আয়নার সামনে বসে আছি । পাশে ছোট বোন রিমা ছোট কাকি আর মেজ কাকি আমাকে সাজিয়ে দিচ্ছে । চোখে হালকা কাজল ঠোটে গোলাপী কালার লিপিষ্টিক । আর হালকা মেকাপ । নিজের দিকে যত বারই দেখছি মনে হচ্ছে যেনো কোনো রাজকুমারী বসে আছে । ধুর নিজের প্রশংসা নিজেই করছি দেখি ছেলে পক্ষ কি বলে । অবশ্য পছন্দ না করারও কোনো কারণ নেই । আমি কি দেখতে খারাপ নাকি । বা পাশে ছোট কাকি আর ডান পাশে ছোট বোন রিমা আমাকে ধরে বসার রুমে নিয়ে যাচ্ছে ।সাথে ইয়া বড় একটা ঘোমটা বিরক্তি কর লাগছে । কোথায় আগে ছেলেকে দেখবো তা না ঘুমটা দিয়ে দিয়েছে ।

তাদের সামনে বসে আছে । এখনও আমার সামনে বসে থাকা ছেলেটাকে দেখতেই পারিনি । কিছুক্ষন পরে ঘুমটা সরিয়ে দিলে হালকা মাথাটা তুলে দেখি একটি ছেলে বসে আছে । যেমনটা শুনেছিলাম ঠিক তেমনি । মনে হলো তার পাশে যেনো আর একজন দাড়িয়ে আছে । মাথাটা হালকা উচু করতেই চক্ষু চরগাছে । এটা তো সিয়াম যে ২ বছর আগে আমার এক্স বয়ফ্রেন্ড ছিলো । সে এখানে কি করছে তাহলে এটা সিয়ামের ভাই । সিয়ামও দেখলাম কেমন যেনো চোখটা বড় করে তাকিয়ে আছে । হয়তো সেও ‌কিছুটা অবাক হয়েছে । হওয়ারই কথা ২ বছর পর দেখা তাও আবার সেছিলো তার ex বয়ফ্রেন্ড । অবশ্যই আমিই ওকে আমার প্রেমের ফাদে ফেলেছিলাম । 
আজ থেকে ২ বছর আগে ভার্সিটিতে যখন নতুন গেলাম । কিছুদূর যেতেই দেখি কিছু ছেলেদের ভির । 
– বুঝছিস মামা আমাকে কেউ আজ পর্যন্ত প্রেমেই ফেলতো পারলো না ।( ওদের মধ্য একটা ছেলে)
তাকিয়ে দেখি দেখতে খুব স্মার্ট আর সুন্দর তবে অহংকারটা বেশি । 
– দেখছিস ছেলেটা কত কিউট তবে বেশি ভাব নেই । ( রাইসা)
– ওর মতো ছেলে আমার কাছে কিছুই না ( আমি ভাব নিয়ে)
– আচ্ছা তাই নাকি ঠিক হয়ে যাক বাজি (রাইসা)
– ঠিক আছে বল কি দিবি । ( আমি)
– তুই যাচাইবি ( রাইসা)
বেস বান্ধবীদের সাথে বাজি ধরে লেগে পড়লাম । দুইদিন ওর আশে পাশে একটু ঘুরতেই কেমন যেনো নরম হয়ে গিয়েছে । আর দুইদিন যেতে না যেতেই নিজে থেকে প্রোপস করছে । তারপর থেকেই পরিচিত প্রথমে বয়ফ্রেন্ড পড়ে ex বয়ফ্রেন্ড তার পরে ব্রেকআপ । যাই হোক অতীত গত আছে গতই থাক।

বর্তমানে মাথাটা নিচু করে বসে আছি ।মাঝে মাঝে আড় চোখে সিয়ামের দিকে তাকাচ্ছি । মনের ভিতরে কেমন যেনো একটা অনুভুতি হচ্ছে । আমি যে সিয়ামকে আড় চোখে দেখছি এটাও সিয়ামের চোখ এড়িয়ে যাচ্ছে না কারণ ও এক ভাবে আমার দিকে তাকিয়েই আছে । 
– কিরে তোরা কি আলাদা কথা বলতে চাস ( সিয়ামের বাবা)
সিয়ামের ভাই মিরাজ কিছু না বলে মাথা নাচিয়ে হ্যা সুচক জানালো । আমিএ তবে লজ্জাটা আমার থেকে মিরাজই বেশি পাচ্ছে দেখেই বুঝা যাচ্ছে । 
আহ কি লজ্জাবতীরে কিন্তু সিয়ামতো এমনটা ছিলো না । যাই হোক দুজনে ছাদে আসলাম । খাটাশটা আবার সাথে সিয়ামরেও নিয়া আসছে । 
– আপনার নামটা না অনেক সুন্দর ( মিরাজ লজ্জায় লাল হয়ে)
– জ্বি ধন্যবাদ আপনারও ( আমি মুখটা বাকা করে এতো লজ্জা আল্লাহ্ মনে হয় সব মেয়েদেরটা এর ভিতরে ভরে দিয়েছে । দেখতে সব দিকে সুন্দর কিন্ত…)
– আচ্ছা ওই খানে যে দাড়িয়ে আছে সেটা কি আপনার ভাই । (আমি)
– হ্যা ও খুবই ভালো একটা ছেলে জানো মেয়েদের থেকে দূরে থাকে ( মিরাজ)
– হুমম সেটা আমার থেকে আর কেইবা ভালো জানে কিন্তু হাদারামটাকে জিজ্ঞাসা করলাম একটা আর সাথে উত্তর দিলো ৩ টার ( মনে মনে ভাবছি)
– আপনি কি এই বিয়েতে রাজি আছেন ( মিরাজ)
কথাটা শুনে সিয়ামের দিকে তাকালাম কিন্তু কোনো কিছুই নেই স্বাভাবিক ভাবে দাড়িয়ে আছি ।মাথাটা নাচিয়ে হ্যা সূচক জানালাম । 
কিছুক্ষন পর তারা চলে গেলো ।রুমের মধ্য বসে আছি । কেমন যেনো লাগছে বুঝতেছি না বিয়ের খুশি নাকি অন্যকিছু । 
– আপুু ( নিলিমা পিছন থেকে জোড়ে চিৎকার দিয়ে)
– আআআআআ
– ভয় পেয়েছো হি হি হি ( নিলিমা)
– এক থাপ্পর দিয়ে দাত ফালাইয়া দিমু ( আমি)
– হু আপু জামাইবাবুটা কিন্তু সেই ( নিলিমা)
– ওই দিকে নজর দিবি না ঠিক আছে ( আমি)
– এহ্ বিয়ের আগেই দখলে নিয়া নিচ্ছে যাই হোক জামাইবাবুর ভাইটা কিন্তু আরও ভালো আমার না…..( হাতের আঙুল দিয়ে উর্নাটা পেচাচ্ছে আর লজ্জার ছাপ দেখা দিচ্ছে কিছু)
-কি কি তুই কি হ্যা ( আমি রাগী কন্ঠে)
– আমার না খুব পছন্দ হয়েছে তোদের বিয়ের পর আমরা প্রেম করবো ( নিলিমা বলেই দৌড়)
– খুব ফাজিল হয়েছিস হাতের কাছে পেলে খবর করে দিতাম ( আমি)

আচ্ছা সিয়াম কি এখন আমাকে ভালোবাসে নাকি ভুলে গেছে । ধুর কিছুই ভালো লাগছে না তাই বিছানার উপর শুয়ে আছি ।

চলবে……

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*