রওনাক ইফাত

অভিশপ্ত ভালোবাসা [১ম অংশ]

রওনাক ইফাত জিনিয়া .রাত 10টা টিপটিপ বৃষ্টি হচ্ছে ব্যালকনিতে বসে বৃষ্টি দেখছি তবে মনটা খুব খারাপ।কারন এতো রাত হলো আকাশের এখনো বাসায় আসার কোন খবর নেই।কদিন ধরেই কেমন জানি ব্যবহার করছে আর এখন ফোনটাও বন্ধ করে রেখেছে।বাধ্য হয়ে ওর ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের কল দিলাম কিন্তু কেউ কিছু বলতে পারলোনা।না।এমনতো ওই না আর ওই খুব একটা রাগ করেনা কখনো আমার সাথে।বলতে গেলে ... Read More »

কলঙ্কিনী [৭ম পর্ব]

লেখা: রওনাক ইফাত জিনিয়া বিয়ের পর প্রথম দুটাদিন বেশ ভালোই ছিল।অন্য পাঁচ-দশটা নতুন দম্পত্তির মত এত মধুর না হলেও খুব একটা খারাপ ছিলনা আমাদের সম্পর্কটা।আসলে সুমন আমার সাথে বেশি একটা কথা বলত না।যেহেতু আমরা দুজন দুজনের অপরিচিত ছিলাম তাই আমিও বিষয়টা স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছিলাম।ভেবেছিলাম কিছুদিন সময় গেলে একে অপরকে জানলেই সব ঠিক হয়ে যাবে।কিন্তু না আমি যে সুমনের সম্পর্কে ভুল ছিলাম ... Read More »

গ্যাংস্টার [৫ম পর্ব]

লেখাঃ রওনাক ইফাত জিনিয়া মাঃ কালরাতে অনেককিছু হয়েছে সব এখন বলা সম্ভবনা তবে সংক্ষেপে তোকে বলি।কাল রাতুল যখন বাসায় আসল তখন দরজা আমিই খুলছিলাম আর ওরে দেখে এতটাই রাগ হয়েছিল অনেক কথা শুনিয়েছিলাম।ওই তোর সাথে দেখা করতে চাচ্ছিল আর বলছিল একবার শুধু তোর সাথে দেখা করতে চায় ওর নাকি মনে হচ্ছে তুই ঠিক নেই।ওই বারবার বলছিল একবার শুধু দেখতে চায় ... Read More »

কলঙ্কিনী [৬ষ্ঠ পর্ব]

লেখা: রওনাক ইফাত জিনিয়া রাত দশটার দিকে ভাইয়া বাড়িতে এল।আমি শুয়ে ঘুমানোর বৃথা চেষ্ঠা করছিলাম অনেকক্ষন যাবত।পাশের ঘরে কথা বলছে আমি আমার ঘর থেকেই তাদের কথা স্পষ্ট শুনছিলাম। –কিরে নাহিদ তোকে এমন কেন দেখাচ্ছে আর জামাই কি বলল রে কবে আসছে? –বাবা? –হ্যাঁ বল। –হাসিব আসবেনা। –আসবেনা মানে?ও বুঝতে পেরেছি ওর কাজ এখনও শেষ হয়নি। –না বাবা তা না। –কি ... Read More »

গ্যাংস্টার [৪র্থ পর্ব]

লেখাঃ রওনাক ইফাত জিনিয়া রাতুলঃ (বেশ অবাক হয়ে)নীলা তুমি আমাকে ফোন দিয়েছ আমারতো বিশ্বাসই হচ্ছেনা? আমিঃ জীবনের প্রথম ও শেষবারের মত ফোন দিলাম।কি ভেবেছিলেন আমি আপনার হাতের পুতুল যখন যেভাবে খুশি চালাবেন আর আমি চলব?আমার জীবনটা শেষ করেও শান্তি হয়নি এখন আমার পরিবারটা শেষ করার জন্য লেগেছেন।এইসবকিছুর জন্যতো আমিই দায়ী তাইনা?আমি না থাকলেতো আর এসবকিছু হতনা আর ভবিষ্যতেও কিছু হবেনা। ... Read More »

কলঙ্কিনী [৫ম পর্ব]

লেখা: রওনাক ইফাত জিনিয়া ঐদিন রাতের ঐ ঘটনার পর আজ সপ্তমদিন চলছে।এই সাতটাদিন সাতটা বছরের মত কেটেছে আমার।এই সাতটা দিনে হাসিব একটা শব্দও আমার সাথে ভালভাবে বলেনি বরং প্রতিদিন বিভিন্ন অজুহাতে আমার গায়ে হাত তুলেছে।প্রথম তিনটাদিন এই বিষয়টা আমার আর হাসিবের মাঝে সীমাবদ্ধ থাকলেও গত চারদিন আগে হাসিব ওর পুরো পরিবারকে সব বলেছে আর এরপর থেকেই সবাই মিলে একত্রে নির্যাতন ... Read More »

গ্যাংস্টার [৩য় পর্ব]

লেখাঃ রওনাক ইফাত জিনিয়া আমিঃ আপনি এতদিনেও এইটুকু বুঝতে পারেননি যে আপনার আর আমার কোন দিক দিয়েই কোন মিল নেই?আপনার পাশে থাকাতো দূরের কথা আমার আপনার ছায়াটাও আমার সহ্য হয়না।দেখুন আমি আপনাকে সহ্য করতে পারছিনা দয়াকরে এখন আমার সামনে থেকে চলে যান। রাতুলঃ থাক আজ আর কিছু বলবনা আর না তোমাকেও কিছু বলতে হবে।তুমি বসো আমি খাবার পাঠাচ্ছি। আমিঃ খাবনা।খাওয়ার ... Read More »

কলঙ্কিনী [৪র্থ পর্ব]

লেখা: রওনাক ইফাত জিনিয়া –কি আবার হবে বিয়ে করার আগে তোর বাবা আমাকে বলেছিল শুভ নামে একটা ছেলে তোকে পছন্দ করত আর বিয়ে করতে চাইতো বলে তোর নামে উল্টাপাল্টা কথা বলে তোর আগের বিয়েটা ভেঙ্গেছে কিন্তু এখনতো দেখছি ঘটনা পুরাটাই উল্টা।তুইতো খারাপই সাথে তোর বাবাও খারাপ আসলে তোর পুরো বংশই খারাপ। –দেখ তোমার সংসার আমি করছি,অন্যায় যদি করেও থাকি তাও ... Read More »

গ্যাংস্টার [২য় পর্ব]

লেখাঃ রওনাক ইফাত জিনিয়া একটা ঘটনা আমার জীবনটাকে শেষ করে দিল।এতক্ষনে নিশ্চয় আমার নিখোঁজ হওয়ার খবরটা চারপাশে ছড়িয়ে পড়েছে।এমনিতেই একজনের জন্য অনিচ্ছা সত্ত্বেও বিয়েটা করতে হচ্ছিল আর এখনতো সেই বিয়েটাও হয়ত ভেঙ্গে গিয়েছে কিন্তু কে করল আমার সাথে এমন?যার এসব করার একটা সম্ভাবনা ছিল সে তো জানেইনা আজ আমার বিয়ে হতে যাচ্ছিল তবে আমার সাথে এমন করে কার লাভ?কেন সে ... Read More »

কলঙ্কিনী [৩য় পর্ব]

লেখা: রওনাক ইফাত জিনিয়া রাত এগারটা চৌকিতে বসে এতক্ষন অতীতের স্মৃতিচারণ করছিলাম।না চাইতেও বারবার স্মৃতিগুলো চোখের সামনে ভেসেই উঠে।হাসিব এখনও আসেনি হয়ত বন্ধুদের সাথে ব্যস্ত নয়ত অন্য কোন কাজে।সত্যি বলতে কেন জানিনা ওর বিষয়ে কিছু জানার কোন আগ্রহই নেই আমার।অবশ্য না থাকারই কথা কারন হুট করে একটা লোক আমার স্বামী হয়ে গেল তাকে জানতে বা বুঝতে যে সময়টুকুর প্রয়োজন ছিল ... Read More »