মিম

হয়তোবা…. [পর্ব- ১৫থেকে শেষ]

হয়তোবা…. লেখিকাঃ মিম [পর্ব- ১৫ থেকে শেষ] তিন ঘন্টা আগে নেহার বিয়ে হয়েছে তৌহিদের সাথে। এই মূহূর্তে ও বসে আছে বাসর ঘরে। তৌহিদ এখনও ঘরে আসেনি। নেহার বাবা চাচাদের সাথে কথা বলছে তৌহিদ। তৌহিদের এক বন্ধু আর একজন চাচাতো ভাই রয়ে গেছে তৌহিদের সাথে। বাকি সবাই চলে গেছে। নেহার খালাতো আর চাচাতো বোন দুজন মিলে তৌহিদকে সেখান নিয়ে এসেছে নেহার ... Read More »

হয়তোবা…. [পর্ব- ১১থেকে ১৪]

হয়তোবা…. লেখিকাঃ মিম [পর্ব- ১১থেকে ১৪] গত দুদিন যাবৎ ইফতির দেখা মিলছে না। আজ বিকেলে নেহার জন্য বিয়ের সম্বন্ধ এসেছে। ছেলে এই এলাকাতেই থাকে। সে নাকি সেই কবে থেকেই নেহাকে পছন্দ করে। আজ আসরের নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বেরোনোর সময় সে সরাসরি নেহার বাবাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে নেহার জন্য। ছেলের এমন কান্ডে নেহার বাবা খুবই খুশি। উনার কথা হচ্ছে ছেলেটা ... Read More »

হয়তোবা…. [পর্ব- ৬ থেকে ১০]

হয়তোবা…. লেখিকাঃ মিম [পর্ব- ৬ থেকে ১০] গতরাত আড়াইটায় ছাদ থেকে ফিরে রুমে এসে ঘুমিয়ে পড়লো নেহা। শুরুতে যদিওবা ঘুমটা আসতে চাচ্ছিলো না। ঘন্টাখানেক এপাশ ওপাশ করার পর ঠিকই ঘুম চলে এলো তার। সকাল ছয়টায় নেহার দরজায় ধাক্কাধাক্কির আওয়াজ হচ্ছে। বাহির থেকে নেহার সবচেয়ে ছোট ভাই নূর নেহাপু নেহাপু বলে চিৎকার করছে। নেহা ধড়মড় করে বিছানা থেকে উঠে দরজা খুলে দেখে ... Read More »

হয়তোবা…. [পর্ব- ১ থেকে ৫]

হয়তোবা…. লেখিকাঃ মিম [পর্ব- ১ থেকে ৫] রাত আড়াইটা বাজে। চারিদিকে কড়া নীরবতা জারি আছে। সাদিয়ার বাসার সবাই বেঘোর ঘুম ঘুমুচ্ছে। সেই সুযোগে সাদিয়া ছাদে এসেছে আত্মহত্যা করবে বলে। আত্মহত্যার কারন হচ্ছে অনিক। দীর্ঘ পাঁচ বছরের প্রেমের ইতি টেনে আগামী মাসের দশ তারিখ অন্য কারো সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে যাচ্ছে সে। আজ সন্ধ্যায়ই হবু বউয়ের সাথে বাগদানের শুভ কাজটা ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-৩১ থেকে ৩৬(শেষ)]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-৩১ থেকে ৩৬(শেষ) মাগরিবের আযান দিয়েছে দশ মিনিট আগে। জুতো বাহিরে রেখে ঘরে ঢুকছে সুহায়লা। মা আর সাবা ড্রইং রুমে বসে আছে। সুহায়লাকে দেখা মাত্রই তার মা মিতা জিজ্ঞেস করলেন, -” কি রে জামাই নাকি সিরাজ ভাইয়ের ছাদে দাঁড়িয়ে ছিলো?” -” হুম।” -” ঐ বাসায় গেলো কিভাবে?” -” ওটা নাকি ও কিনে নিয়েছে।” -” ঐ বাড়ি ও ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-২৬ থেকে ৩০]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-২৬থেকে ৩০ ঘড়িতে সাড়ে এগারোটা বাজে। পাশাপাশি শুয়ে আছে তানভীর সুহায়লা। সুহায়লা ফেইসবুক চালাচ্ছে আর তানভীর কপালে হাত দিয়ে চোখ বন্ধ করে শুয়ে আছে। সুহায়লার ভাই বোনদের খুব কাছ থেকে দেখেছে আজ ও। সাথে ইমরানকেও। কত্ত মিল ওদের মাঝে। ওদের দেখে মনে হয়েছে তানভীর সেখানে থেকেও নেই। ওদের মতো তানভীর না। ওরা সবাই কতটা গল্প আর হাসাহাসিতে ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-২১ থেকে ২৫]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-২১থেকে ২৫ বাসার কাছাকাছি এসে নিশাত তানভীরকে মেসেজ করলো পাঁচ মিনিটের মধ্যে সুহায়লা বাসায় ঢুকবে। এক এক করে খুব দ্রুত তানভীর সবকয়টা ক্যান্ডেল জ্বালাচ্ছে। ক্যান্ডেল জ্বালানো শেষে দরজায় মাত্র এসে দাঁড়িয়েছে সে। ঠিক তখনই দেখতে পেলো সুহায়লা মেইন গেইট দিয়ে হেঁটে হেঁটে বাড়ির দিকে আসছে। পুরো বাসা অন্ধকার। সুহায়লা খানিকটা চমকে গেলো। কাছাকাছি যেতেই ড্রইংরুমে মোমবাতির আবছা ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-১৬ থেকে ২০]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-১৬ থেকে ২০ আটবার ফোন করার পর ফোন রিসিভ করলো ফাহিম। -” সমস্যা কি তোর? ফোন রিসিভ করছিলি না কেনো?” -” আরে মিটিংয়ে ছিলাম। তোর কথায় মনে হচ্ছে খুব অস্থির হয়ে আছিস। কি হয়েছে?” -” সুহায়লার সাথে কন্টাক্ট করতে পারছিনা। সকালে নাকি বাবার বাসায় গেছে। সারাদিনে একটা ফোনও করেনি। আমি ফোন দিলাম। কিন্তু ফোন যাচ্ছে না। সুইচ ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-১১ থেকে ১৫]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-১১ থেকে ১৫ সুহায়লা রুমে এসে দেখে তানভীর তখনও ঘুমুচ্ছে। ঘুমন্ত অবস্থায় খুব সুন্দর দেখা যায় তানভীরকে। কত শান্ত মনে হয় ওকে। ইশশ…. ও যদি সত্যিই এমন শান্ত হতো! তানভীরের পাশে এসে এক হাতের উপর মাথা ভর দিয়ে শুয়ে আছে সুহায়লা। খুব কাছ থেকে দেখছে মানুষটাকে। তানভীরের খোঁচা খোঁচা দাড়িওয়ালা গালটা তে আলতো করে ছুঁয়ে দিচ্ছে সুহায়লা। ... Read More »

বন্ধ দরজা [পর্ব-৬ থেকে ১০]

বন্ধ দরজা লেখা-মিম পর্ব-৬ থেকে ১০ -” আমার সমস্যা কোথায় মানে? ও মানুষের সামনে তোমাকে আব্বা বলে ডাকবে এটা কেমন দেখাবে? ও যে মিডেল ক্লাস ফ্যামিলি থেকে বিলং করে সেটাতো সবার সামনে বুঝানোর প্রয়োজন নেই।” -” তুই বারবার মিডেল ক্লাস কথাটা বলে সুহায়লাকে ইনসাল্ট করছিস।” -” মিডেল ক্লাস কে মিডেল ক্লাস বলবো না তো হাই ক্লাস বলবো নাকি?” -” মুখে ... Read More »