ফয়সাল আহম্মেদ শাওন

তেজ

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন “মেয়েটা কে ছিলো?.আমি ঢাবিতে চান্স পাওয়ার পর সব থেকে খুশি মনে হয় রাত্রি হয়েছিলো। কিন্তু ওর সেই খুশিটা তিলে তিলে নষ্ট হয়ে যাচ্ছিলো আমার ডিমান্ড দেখে। ও আমার মেঝ চাচার ছোট মেয়ে।বলতে গেলে আমাদের জয়েন ফ্যামিলি। শুধু খাওয়া দাওয়ার দিক দিয়ে আমরা আলাদা খাই। দাদার তৈরি করা বাড়ির তিন তালায় রাত্রিরা থাকে আর আমরা দুই তালায় ... Read More »

ছোট রুম

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন উফআওয়াজটা করেই লাবিহা আমার দিকে বিরক্ত হয়ে তাকালো। ওর তাকানোর ভঙ্গি দেখে আমি হেসে উঠলাম। লাবিহা এইবার খুব রেগে গিয়ে বলে উঠলো, একটা কাজ করতেছি আর তুমি চুল ধইরা টানতেছো! সমস্যাটা কি তোমার শুনি?“তুমি ঘামলেও না তোমাকে খুব সুন্দর লাগে।“সুন্দর লাগতেছে তো তাকায়া তাকায়া দেখো চুল টান দিবা কেন?“তুমিতো মোবাইলের দিকে তাকায়া আছো তো দেখবো কি ... Read More »

দিয়া বাড়ি [শেষ অংশ]

লেখা:ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন কাজ শেষে দুইজন এক সাথেই বের হয়ে পরলাম। ধানমন্ডি আমাদের মেইন অফিসে ঢুকেই মেয়েটা আমাকে ওয়েটিং রুমে বসিয়ে বল্লো, এখানে তুমি বসো আমি তাড়াতাড়ি হিসাবটা দিয়েই এসে পড়তেছি।“আচ্ছা ঠিক আছে যাও। আমার কথাটা শোনার পর মেয়েটা চলে গেলো। আমার ভাবনা গুলো মেয়েটা একের পর এক ভেঙ্গে দিচ্ছিলো। প্রথমত মেয়েটা কে নিয়ে কি সব ভাবতাম। মেয়েটা খুব মুডি হবে, ... Read More »

দুইয়ের ভিতর এক [শেষ অংশ]

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন ভিডিও কলে কথা শেষ হওয়ার পর প্রায় আরো ঘন্টা খানিক দুইজন চ্যাটিং করলাম। বাবা আর ফারহান বাসায় ফিরার পর যখন খেতে বসলাম ঠিক তখনি বাবা ফারহানকে বলে উঠলো, ফায়সালের ভিসার কি খবর?“ভিসার কি খবর হবে। আমার এক ফ্রেন্ড সেইখানে থাকে বল্লামিতো। ওর কাছে আজকে ভিসা চাইলে ওর ভাইকে দিয়ে একমাসের মধ্যে পাঠিয়ে দিবে। ওর বড় ভাই ... Read More »

দিয়া বাড়ি [প্রথম অংশ]

লেখা:ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন মা……………..“আর একটু বাবা।“আর কতক্ষন!! আধা ঘন্টা ধইরা বইসা আছি।“তো আমি কি করবো? গ্যাস নাই তাইতোরুটিভাজতে দেরি হচ্ছে।“তাড়াতাড়ি করো।.কিছুক্ষন পর মা এসে আমাকে আর বাবাকেরুটি আর বাজি দিয়ে নিজেও খেতেবসলো।আমি চুপচাপ খেতে লাগলাম। কেন যেনোমনে হচ্ছিলো বাবা আমাকে কিছু বলবে।কারন তার চোখের দৃষ্টিটা বারবারআমাকেই লক্ষ করছিলো।.একটা রুটি শেষ করে, পানিটা খেয়ে যেইআরেকটা রুটি ছিরতে যাবো তখনি বাবাবলে উঠলো, ... Read More »

ইশারা

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন প্রতিদিন কচিং শেষ করে মডেল টাউন হয়ে আসার সময় ১২ তালা বিল্ডিংটার দিকে তাকিয়ে দেখতাম ৪ তালা থেকে একটা মেয়ে ব্যালকনি থেকে আমাদের দিকে তাকিয়ে থাকে। আসলে কচিং শেষ হলে আমার ফ্রেন্ড সার্কেলরা এক সাথেই বের হই। কারো চোখটা সেইখানে না পড়লেও আমি ঠিকি আড়ি আড়ি চোখ নিয়ে সেই দিকটাতে দৈনিক তাকাতাম। ৪তালা থাকা মেয়েটা ঠিকি ... Read More »

দুইয়ের ভিতর এক [দ্বিতীয় অংশ]

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন ফারহান বাইকের চাবিটা হাতে নিয়ে আমার দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে আবার আমাকে বলে উঠলো, তোর থার্ড ইয়ার ফাইনাল এক্সাম শেষ হলেই পাসপোর্ট,ভিসা তৈরি করতে দিয়ে দিবো। তেজগাঁও চিনা ভাষা শিখার একটা কচিং সেন্টার আছে সেইখানেও ভর্তি করিয়ে দিবো। আমি আবারো বলতাছি এই একটা মাস একটু সিরিয়াস হ। আমি ফারহানের কথাটা শুনে আস্তে করে বলে উঠলাম, হুম।ফারহান আর ... Read More »

দুইয়ের ভিতর এক [প্রথম অংশ]

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন “কিরে মনমরা হয়ে বইসা আছোস কেন?.ফারহান আমার থেকে এক বছর আঠার দিনের বড়। লেখাপড়ার দিক দিয়েও আমার এক বেচ সিনিয়র। কিন্তু আমাদের দুই ভাইয়ের ফ্রেন্ড সার্কেলটা সেইম ছিলো। আমরা যে দুই ভাইসেইটা কেউ কখনো বুঝতেই পারতোনা। কারন আমাদের চালচলন ছিলো বন্ধুর মতন। ঘরের ভিতরেও যখন দুইজন পড়তে বসতাম, আমার অপশনাল সাবজেক্ট বাদে যেই গুলাতে সমস্যাহতো তখনি ... Read More »

বিচ্ছিন্ন নক্ষত্র [Last]

লেখা> ফ|য়স|ল অ|হম্মেদ শ|ওন সাত.দিন দিন নিলাশার ব্যাবহারটা খুব অদ্ভুত লাগতে লাগলো। হুট হাট যখন খুশি আমার বাসায় চলে আসতো। আজ যখন আমাদের ব্যাংকের একজন রেগুলার গ্রাহকের একটা মোটা অংকের লোন পাস করার জন্য তার দেওয়া সব কাগজপত্র চেক করতেছিলাম ঠিক তখনি নিলাশা আমার ডেস্কের সামনে এসে আমার হাতের পাশে থাকা কফির কাপটাতে চুমুক দিয়ে বলে উঠলো,”কাগজগুলো দেখা হলে তুমি ... Read More »

আনমনে

লেখা: ফ|য়স|ল আহম্মেদ শ|ওন “তুমি কাল গ্রামে চলে যাবে?আফরিনের কথাটা শুনে আমি ওর দিকে একদৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলাম। ওর মনে যে কি চলছে আমি কিছুটা হলেও বুঝতে পারছি। মেয়েটার যে মনটা খুব খারাপ হয়ে গেছে ওর চেহারার মাঝে স্পষ্ট ধরা দিচ্ছিলো। কি করবো! প্রতি বছর গ্রামে যাওয়ার জন্য রোজার ঈদ আর কোরবানি ঈদেই সময় পাই। এই বার রোজার ঈদেও গ্রামে যাওয়ার ... Read More »