নিলয় রসুল

অরিত্রীর বিয়ে [পর্ব-৪]

লেখাঃনিলয়_রসুল ৯. নীহা অয়নীর দিকে রাগী চোখে তাকিয়ে আছে। কিছুক্ষণ পর রাগী গলায় বলল, ‘ সাথী আপুকে জানাইছিস এসব?’ অয়নী মাথা নিচু করে বলল, ‘মনে ছিল না তো..!’. নীহা মুখে ভেঙ্চি কেটে বলল,’মনে ছিল না তো! তা এখন আমাকে মনে আসল কেন আপনার..!’ ‘নীহা..! এরকম করিস না প্লিজ। আমার ভালো লাগছে না৷ নীল এভাবে রাগের মাথায় চলে গেল। কিছু তো ... Read More »

অরিত্রীর বিয়ে [পর্ব-৩]

লেখাঃনিলয়_রসুল ৬. ‘অপারেশনটা কি না করলেই নয় ডাক্তার?’ আহান উত্তরের অপেক্ষায় তাকিয়ে আছে ডাক্তারের দিকে। ডাক্তার মাথা নেড়ে না বলে দীর্ঘশ্বাস ফেলল। বলল, ‘অপারেশন না করলে বারবার এরকম হবে। এখন আপনি দেখেন কী করবেন। যদি অপারেশন না করেন তো সমস্যা বাড়বে। আর ধীরে ধীরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়বে। ‘ আহান চোখমুখ ধীরে ধীরে ফ্যাকাশে হয়ে গেল। ডাক্তারের দিকে না তাকিয়েই ... Read More »

অরিত্রীর বিয়ে [পর্ব-২]

লেখাঃনিলয়_রসুল ৩. ‘আপনাকে আপনার ওয়াইফ খুঁজছে। কাইন্ডলি একটু যদি যেতেন ভিতরে তাহলে ভালো হতো। উনি অস্থির হয়ে উঠেছেন। প্লিজ…’ নার্সের কথা শুনে আহানের বিস্ময়ের সাগরে ঢেউ উঠেছে মারাত্মকভাবে। অরিত্রী তাকে যে এ জীবনে আর ডাকবে এটা ওর কল্পনাতেই ছিল না। নার্সকে অনুসরণ করে ভিতরে প্রবেশ করল আহান। আহান কেবিনে ঢুকতেই ডাক্তার বের হয়ে চলে গেলেন। আহান অরিত্রীর পাশের চেয়ারে বসে ... Read More »

অরিত্রীর বিয়ে [পর্ব-১]

লেখাঃনিলয়_রসুল ১. অরিত্রী হাসপাতালের আই সি ইউ তে ভর্তি। সাধারণত বিয়ে হলে বর বউকে রাতে বাসর ঘরে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু অরিত্রীর এখন আই সি ইউ তে এডমিট আছে। অরিত্রীর মাথার পাশে বসে আছে ওর একমাত্র নির্ভরতার মানুষ আহান। অরিত্রী ঘুমাচ্ছে। বেঘোরে ঘুমাচ্ছে। কী নিশ্চিন্ত আর নিষ্পাপ লাগছে ওর ঘুমন্ত মুখ খানা দেখতে। কিছুক্ষণ আগে অরিত্রীর বিয়ে হয়েছে। আর অরিত্রীর ... Read More »

মৃন্ময়ী [অন্তিম অংশ]

লেখক Niloy Rasul মৃন্ময়ীর বাবা রাস্তায় হাঁটছে আর মোনালিসার কথা ভাবছে। মানুষ কতটা খারাপ হলে সত্যি কথাটা বলার পরও ফের সন্দেহ করতে পারে তা ভেবে অবাক হয়ে যাচ্ছেন মৃন্ময়ীর বাবা। মোনালিসা যখন প্রথমবার জিজ্ঞেস করল মৃন্ময়ীর সৎ মায়ের গর্ভে কার সন্তান ছিল তখন মৃন্ময়ীর বাবা সঠিক যেটা জানতেন সেটাই বলেছিলেন। বলেছিলেন মৃন্ময়ীর সৎ মায়ের এক্স বয়ফ্রেন্ডের সন্তান ছিল। অথচ কি ... Read More »

মৃন্ময়ী [ষষ্ঠ অংশ]

লেখক Niloy Rasul ঘরের ভিতর থেকে লোকটা টার্গেট প্লেসের দিকে এগিয়ে আসতেই মৃন্ময়ী সংকেত হিসাবে বাম পাশে থুতু ফেলল আস্তে করে একবার। এবার একশনের পালা। শুভ্রর ওপর সব নির্ভর করছে। ওরা বেঁচে ফিরতে পারবে অপারেশন থেকে নাকি এখানেই পঁচে মরবে। নিহারিকা সংকেত পাওয়ার পর হাত মুষ্টিবদ্ধ করে ক্যারাতি স্টাইলে শুভ্রর পিছন থেকে দু ধাপ পিছনে গেল। যেন শুভ্র বিপদে পড়লে ... Read More »

মৃন্ময়ী [পঞ্চম অংশ]

লেখক Niloy Rasul শুভ্রর বুক থেকে মৃন্ময়ী মাথা তুলে শুভ্রর দিকে মায়াভরা দৃষ্টিতে তাকিয়ে বলল, -আগামীকালকের অপারেশনে আমাকে নিলে কী এমন ক্ষতি হতো…! শুভ্র কী বলবে ভেবে পাচ্ছে না। রাস্তার অপর প্রান্তে তাকিয়ে বলল, -জানিসই তো এই কাজটা কতোটা রিস্কের! যদি কেউ একজন চেহারা দেখে ফেলে তাহলে এ জীবনে আর কারও সাথে দেখা করা লাগবে না। ওখানেই জীবনের অন্তিম পর্বের ... Read More »

মৃন্ময়ী [চর্তুথ অংশ]

লেখক Niloy Rasul ত্রিশ. -বাইরে সারারাত কাটিয়ে আসা কোনো নোংরা মেয়ের স্থান এ বাড়িতে নেই মৃন্ময়ী… – একজন খুনির মুখে এ কথা কি মানায় বাবা! মৃন্ময়ীর বাবা বিস্ফোরিত নয়নে তাকালেন ওর দিকে। যে ভয়টা তিনি পেয়ে এসেছেন সেটাই সত্যি হলো! মৃন্ময়ী সব জেনে গেছে! মৃন্ময়ীর বাবা আর কথা না বাড়িয়ে মৃন্ময়ীর ঘর থেকে বেরিয়ে আসল। মৃন্ময়ীর মা মৃন্ময়ীর বেডের কাছে ... Read More »

মৃন্ময়ী [দ্বিতীয় অংশ]

লেখক Niloy Rasul মৃন্ময়ীর মায়ের হাত ভয়ানক ভাবে কাঁপছে। উনার ভয় একটাই মৃন্ময়ী কি সব জেনে গেল তাহলে। এতদিনের চাপা সত্য এভাবে বেরিয়ে আসলো হুট করে! মৃন্ময়ীর মা সোফার ওপর ধুপ করে বসে পড়লেন৷ তার শরীরের সমস্ত শক্তি যেন আজ নদীর জলের সাথে মিলিয়ে গেছে কোনো এক অজানার পথে। কিন্তু কে করল এরকম কাজ তা মৃন্ময়ীর মা হাজার চেষ্টা করেও খুঁজে ... Read More »

মৃন্ময়ী [প্রথম অংশ]

লেখক Niloy Rasul এক.শুভ্র, সুদিনে দুর্দিনে সব দিনে ওকে মহল্লার লোক পাশে পায়। সুদিনে ও যায় রস আহরণ করতে আর দুর্দিনে যায় মরার ওপর খাড়া ঘা দিতে। তাই দুই দিনের কোনদিনই ওর এই পাশে থাকাটা কেউ ভুলেও চায় না। কিন্তু কে শোনে কার কথা ওকে সবক্ষেত্রে আগে পাওয়া যাবে। এলাকায় একটা আতংক বিরাজ করে যখন মহল্লার বুড়োরা শোনে শুভ্র এসেছে। ... Read More »